খামার নির্মানঃ

খামার নির্মাণ শুরু করার আগে একটি সঠিক নকশা প্রস্তুত করা একান্ত
প্রয়োজন। সঠিক নকশা খামার নির্মাণের খরচ কমায় এবং কোন অসুবিধা
ছাড়াই খামারে উৎপাদন সংক্রান্ত ব্যবস্থাপনা এবং অন্যান্য কাজকর্ম পরিচালনা
করতে সাহায্য করে।
 উচ্চ মানের চাষ ব্যবস্থাপনা করার জন্য সঠিক নকশা অনুযায়ী খামার নির্মাণ
হওয়া অত্যন্ত জরুরী এবং এর ফলে স্থানীয় পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করা
সহজ হয়।

 সঠিক স্থান নির্বাচন এবং নকশা অনুযায়ী খামার নির্মাণ বিভিন্ন প্রাকৃতিক
দুর্যোগ যেমন অতিবৃষ্টি, বন্যা, ঝড় ইত্যাদি সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানে সাহায্য
করে।
 আয়তাকার বা বর্গাকার পুকুর চিংড়ি চাষের জন্য সর্বাধিক উপযুক্ত। প্রাকৃতিক
ভাবে বাতাসের মাধ্যমে জলকে অক্সিজেন সমৃদ্ধ করার জন্য পুকুরের লম্বা দিক
বাতাসের গতিপথের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে হওয়া উচিত।
 চিংড়ি চাষের পুকুর সর্বনিম্ন ১.৫ মিটার গভীর জল ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন হওয়া
উচিত এবং পুকুরের তলদেশের ঢাল আউটলেটের দিকে ১:২০০০ বা হেক্টর
প্রতি ২০-৩০ সেন্টিমিটার থাকা উচিত। এই ঢাল বজায় থাকলে সহজে জল
বার করা সম্ভব হয় পুকুরের তলদেশ শুকানো জন্য।
 যেসব স্থানে জল খুব ঘোলা অর্থাৎ অধিক পরিমাণে সাসপেন্ডেড সলিড আছে,
সেই সব স্থানে একটি রিজার্ভার থাকা খুবই জরুরী। এই রিজার্ভার সেটেলমেন্ট
পন্ড এর কাজ করে। এই রিজার্ভারে জলে ক্লোরিন দিয়ে শোধন করে পুকুরে
ব্যবহার করা যেতে পারে রোগ সংক্রমনের সময়।

 খামার পরিচালনায় প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ব্যবস্থা যেমন জৈবনিরাপত্তা ব্যবস্থা,
নিরবচ্ছিন্ন এবং যথেষ্ট পরিমাণে বায়ু সঞ্চালন, জেনারেটার, রিজার্ভার, এফ্লুয়েন্ট
ট্রিটমেন্ট পন্ড ইত্যাদি আধা নিবিড় চিংড়ি চাষের জন্য অত্যন্ত জরুরী।
 যেহেতু ভেনামি চিংড়ি অত্যন্ত উচ্চ ঘনত্বে মজুদ করা হয়, এর জন্য অধিক
পরিমাণে বায়ু সঞ্চালন দীর্ঘসময়ের জন্য প্রয়োজন হয় জলের বৃত্তাকার গতি ও
অক্সিজেন সরবরাহ করার জন্য। বাগদা চিংড়ি চাষে তুলনামূলক ভাবে কম
বায়ু সঞ্চালন প্রয়োজন হয়। নিরবচ্ছিন্ন বায়ু সঞ্চালন অনেক ক্ষেত্রে পুকুরের
বাঁধের ক্ষয় করতে পারে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য এইচ.ডি.পি.ই.
লাইনিং ব্যবহার করা যেতে পারে।
 চিংড়ি চাষের খামারে জৈব নিরাপত্তা ব্যবস্থা যেমন পাখির জন্য পুকুরের উপর
জাল, কাঁকড়ার যাতায়াত আটকানোর জন্য পুকুরের চারপাশের জাল, এক
পুকুর থেকে অন্য পুকুরে সংক্রমণ প্রতিরোধ করার জন্য কর্মীদের হাত ও পা
জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থা ইত্যাদি থাকা প্রয়োজন।
 পুকুরের তলদেশের মাঝ বরাবর সেন্ট্রাল ড্রেইন এবং সেখান থেকে কালো মাটি
অপসারণের ব্যবস্থা থাকা অত্যন্ত জরুরী।

Leave a Reply